Deprecated: Function get_magic_quotes_gpc() is deprecated in /customers/2/1/8/swadhindesh.com/httpd.www/bangla/wp-includes/load.php on line 651 Deprecated: Function get_magic_quotes_gpc() is deprecated in /customers/2/1/8/swadhindesh.com/httpd.www/bangla/wp-includes/formatting.php on line 4381 Deprecated: Function get_magic_quotes_gpc() is deprecated in /customers/2/1/8/swadhindesh.com/httpd.www/bangla/wp-includes/formatting.php on line 4381 Deprecated: Function get_magic_quotes_gpc() is deprecated in /customers/2/1/8/swadhindesh.com/httpd.www/bangla/wp-includes/formatting.php on line 4381 বিজয় দিবসে যুদ্ধদিনের কথা | Swadhindesh.com-স্বাধীনদেশ

Thursday , 6 August 2020

Latest News
Home » TOP TEN » বিজয় দিবসে যুদ্ধদিনের কথা

বিজয় দিবসে যুদ্ধদিনের কথা

December 17, 2017 9:50 am Category: TOP TEN, নির্বাচিত কলাম Comments Off on বিজয় দিবসে যুদ্ধদিনের কথা A+ / A-

আবদুল কাদির সালেহ

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস । নয় মাসের মুক্তি যুদ্বের পর আমরা লাভ করি একটি স্বাধীন সার্বভৌম পতাকা । কিন্তু সে পতাকাটা নির্মিত হয়েছিল বেশ আগেই । বিজয়ী বাঙালীর কাছে পাকিস্তানী শাসকগোষ্ঠীর ক্ষমতা হস্তান্তরে টালবাহানার প্রেক্ষাপটে ছাত্র জনতার মধ্যে টানটান উত্তেজনা ও বিদ্রোহ ফুঁসে উঠে । ২ রা মার্চ ঢাকা বিশ্বিদ্যালয়ের কলা ভবনে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন তৎকালীন ছাত্রনেতা আ স ম আবদুররব । যুদ্বকালীন সময়ে আমি ছিলাম
১১ বছরের কিশোর ।

৬২ সাল থেকেই দেশ ছিল আন্দোলনে উত্তাল । ৬৭,৬৮ র আন্দোলনে বড় ভাইরা মাদ্রাসায় হরতাল ডেকে আমাদেরকে টেনে নিয়ে গেছেন মিছিলে । ৭ দফা এবং ১১ দফা আন্দোলনের পাশাপাশি মাদ্রাসা ছাত্ররা করতো ৮ দফার আন্দোলন । মনে পড়ে সেই সময় প্রায় প্রতিদিনই ক্লাস বন্দ করে বড় ভাইরা আমাদেরকে মিছিলে নিয়ে যেতেন । আমার হাতের লিখা সুন্দর ছিল । মিছিলের পোস্টার লিখার দায়িত্ব দিতেন আমাকে । বাঁশের কলম দিয়ে লিখতাম মতিন ভাই আলাউদ্দীন ভাই( ভাষা সৈনিক) মুক্তিচাই দিতে হবে । মোদের দাবী মানতে হবে নইলে গদী ছাড়তে হবে । আইয়ূব মোনায়েম ভাই ভাই এক দড়িতে ফাঁসি চাই ।

আন্দোলনের গোড়ার্থ তখন তেমন না বুঝলেও মুলত এই সব মিছিল আর পোস্টার লিখা আমার মধ্যে একধরনের দ্রোহী চঞ্চলতা তৈরী করে । মাঝে মধ্যে দু একটা ছাপা লিফলেট আসতো ঢাকা থেকে । আমি বাড়ী ফিরে এ গুলো মুখস্ত করতাম আর বাড়ীর পাশে নয়াপাড়া চা বাগানে গিয়ে চারা গাছ গুলোকে শ্রোতা বানিয়ে মুখস্ত বক্তৃতা ঝরাতাম । এ ভাবে একদিন যুদ্ধের দামামা বেজে উঠলো ।

২৫ মার্চে ঢাকা ক্রেকডাউনের পরে আর্মিরা বাড়ীঘর জালিয়ে অগ্রসর হতে থাকে। আমাদের বাড়ী ছিল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সুতিকাগার তেলিয়াপাড়ার আড়াই মাইল দুরত্বে । চারদিকে আতংক । হঠাৎ করেই বিকট শব্দে ডিনামাইট ফুটলো তেলিয়াপাড়ার অনতিদূরে ।মানুষ আতংকে গ্রাম খালি করে যে যেভাবে পারে পালাতে লাগলো । পরে খবর আসলো এটি পাকিস্তান আর্মির কাজ নয়।

এদের অগ্রযাত্রা ঠেকাবার জন্য আমাদের বাড়ী থেকে ৭ মাইল দূরের শাহবাজপুর ব্রীজ উড়িয়ে দিয়েছে মুক্তিবাহিনী ।  মানুষ বাড়ী ঘরে ফিরে আসলো বটে কিন্তু আতংকটা উৎকন্ঠার রূপ নিলো । কারন যেখানেই মুক্তিবাহিনীর তৎপরতার সন্ধান পায় সেখানেই পাক আর্মিরা খুব নির্মম প্রতিশোধ নেয় ।

এরই মধ্যে আমাদের এলাকার পাকিস্তান গণ পরিষদের সাবেক সেক্রেটারী সৈয়দ সঈদ উদ্দীন সাহেবের ভাতিজা ব্রাম্মনবাড়ীয়া কলেজের ছাত্র সৈয়দ শাহজাদা আমাকে বললেন , তোমরা মাদ্রাসায় যে স্টুডেন্ট ইউনিয়ন কর যার তুমি সেক্রেটারী আমিওতো একই দল করি । তবে আমারটা এটা স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় মাদ্রাসায় সর্বত্র । সারা পাকিস্তানব্যাপী । ঐক্য শিক্ষা শান্তি প্রগতির জন্য আমরা কাজ করি । নাম বাংলায় ছাত্র ইউনিয়ন – ঠিক ক তোমাদের স্টুডেন্ট ইউনিয়নের বাংলা নাম ।

উল্লেখ করা যেতে পারে , মিছিলে আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকার জন্য মাদ্রাসায় তিন ক্লাস জুনিয়র থাকা অবস্থায় আমি মাদ্রাসা স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সেক্রেটারী নির্বাচক হই । সৈয়দ শাহজাদা বললেন, তুমি আমাদের সাথে জয়েন করো । আমি জয়েন করলাম । তিনি ক’দিন পর আমাকে একটা ছাপা কার্ড এনে দিলেন । তাতে আমার নাম লিখা মোহাম্মদ আব্দুল কাদির ( ছালেহ)
সভাপতি ইটাখোলা জুনিয়ার মাদ্রাসা শাখা । (চলবে )

পরবর্তি অংশ : আমার এলাকায় স্বাধীনতার প্রথম মিছিল ও পতাকা উত্তোলন ।

লেখক : অধ্যাপক মাওলানা আবদুল কাদির সালেহ ।
সাবেক সহযোগী সম্পাদক : দৈনিক আল মুজাদ্দেদ
চেয়ারম্যান : আল আমীন ফাউন্ডেশন ও স্কুল, বার্মিংহাম, ইংল্যান্ড
ইমেল : quadirsaleh@gmail.com

বিজয় দিবসে যুদ্ধদিনের কথা Reviewed by on . আবদুল কাদির সালেহ ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস । নয় মাসের মুক্তি যুদ্বের পর আমরা লাভ করি একটি স্বাধীন সার্বভৌম পতাকা । কিন্তু সে পতাকাটা নির্মিত হয়েছিল বেশ আগেই । বিজয় আবদুল কাদির সালেহ ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস । নয় মাসের মুক্তি যুদ্বের পর আমরা লাভ করি একটি স্বাধীন সার্বভৌম পতাকা । কিন্তু সে পতাকাটা নির্মিত হয়েছিল বেশ আগেই । বিজয় Rating: 0
scroll to top